বৃহস্পতিবার
১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং
২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
১৮ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

শ্যামনগরে বিদ্যালয়ের সুনাম কুড়াতে সভাপতি বিপাকে

প্রতিবেদক:  Shomoy News 24    প্রকাশের সময়: 20/09/2019  9:57 PM

ন্যাশনাল ডেস্ক: সাতক্ষীরার শ্যামনগরের ভেটখালী এ করিম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী বিদ্যালয়ের সুনাম কুড়াতে গিয়ে নিজেই পড়েছেন বিপাকে। সূত্রে প্রকাশ, আসন্ন দূর্গাপুজা উপলক্ষ্যে রমজাননগরের ভেটখালী এ করিম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাধ্যমে উৎসব মুখর পরিবেশে পুজা পালন ও মেলা বসানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। প্রতি বছরে এ মাঠে দূর্গাৎসব ও মেলা বসে। দোকানদারদের কাছ থেকে মন্দির কমিটির দোহাই দিয়ে চাঁদা আদায় করা হয়। বহু টাকা উপার্জিত হলেও তাহা তছরুপ হওয়ার অভিযোগ ওঠে। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন টাকা গ্রহন করেন না। অথচ, চাঁদা নেওয়ায় বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বৈঠকে এ বিষয়টি আলোচনায় আসে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষকরা মাঠটি বিনা চাঁদায় উৎসব মুখর পরিবেশে দূর্গোৎসব ও মেলা বসলে বিদ্যালয়ের সুনাম বাড়বে এই মতামত ব্যক্ত করেন। তখন সভাপতি আকবর আলী এ বিষয়টি নিয়ে মন্দির কমিটির সভাপতি সুভাষ চন্দ্র মন্ডলকে মোবাইল ফোনে অবগত করে মন্তব্য জানতে চান। তখন সুভাষ চন্দ্র মন্ডল জানান, চাঁদা নেওয়া হয় পুজার খাতে ও পুলিশ প্রশাসনদের দেওয়ার জন্য, শ্যামনগরের প্রেক্ষাপটে এটা বৈধ হবে বলে তার কথায় প্রমান মেলে। বিদ্যালয়ের সভাপতি আকবর আলী বিদ্যালয়ের সাথে মন্দির সভাপতির বক্তব্য নিয়ে আলোচনায় প্রস্তাব দেন। যাতে দূর্গাৎসব ও বড় প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তিক্ষুন্ন না হয়। অথচ, এ বিষয়টি নিয়ে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে মন্দিরের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র মন্ডল মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে নিজেকে বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন করায় এলাকায় ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। এলাকার সুশীল সমাজ এ বিষয় নিয়ে মোবাইল ভয়েস রেকর্ড ও সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্য যথাযথ তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান।

Site Develop by : Shekh Mostafizur Rahman Faysal