রবিবার
২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং
৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
২৩শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

কল্পনাবিলাসী বাজেট বাস্তবায়নযোগ্য নয়: বিএনপি

প্রতিবেদক:  Shomoy News 24    প্রকাশের সময়: 06/06/2015  12:07 AM

বিএনপি

ন্যাশনাল ডেস্ক, সময় নিউজ ২৪ ডটনেট: ২০১৫-১৬ অর্থবছরের ঘোষিত বাজেটকে কল্পনাবিলাসী ও কথামালার বাজেট হিসেবে আখ্যায়িত করেছে বিএনপি। একইসঙ্গে এই বাজেট বাস্তবায়নের অযোগ্য বলে মন্তব্য করেছে দলটি। শুক্রবার বিকালে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এই বাজেট এতটা অবাস্তব যে তা বাস্তবায়ন দুঃসাধ্য। অর্থমন্ত্রী প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জনে যে কথা বলেছেন-বাস্তবতা তা নয়। রাজনীতিতে স্থিতিশীলতা বহাল থাকলেও, অবকাঠামোর দুর্গতি, গ্যাস-বিদ্যুতের অপর্যাপ্ততা-বিদেশী বিনিয়োগ কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছার কোন কারণ নেই। জিডিপি’র মাত্র এক শতাংশ বৈদেশিক বিনিয়োগে প্রবৃদ্ধি অর্জন অলীক কল্পনা ছাড়া আর কিছুই নয়। এছাড়া সর্বগ্রাসী দুর্নীতি ও সুশাসনের অনুপস্থিতিতে প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি তো দূরে থাক, বর্তমান অবস্থাও ধরে রাখা কঠিন। তিনি বলেন,  বিএনপি শাসনামলের শেষ বছর প্রবৃদ্ধি প্রায় ৭ শতাংশ থাকলেও, এরপর থেকে সেটা ক্রমেই নিম্নগামী হয়েছে। বিশাল অংকের বাজেটে যে উচ্চাভিলাষী রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে- সেটা আদায় করা অসম্ভব বলে অর্থনীতিবিদরা ইতিমধ্যে অভিমত প্রকাশ করেছেন। যেখানে চলতি অর্থবছরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়নি সেখানে আরও ৩০ শতাংশ বেশি রাজস্ব আদায় করা কঠিন হবে বৈকি। তিনি বলেন, অবকাঠামোসহ অন্যান্য খাতে অর্থের যোগান দেয়াও কল্পনা ছাড়া আর কিছু নয়। তাছাড়া অর্থমন্ত্রী’র বাজেট বক্তৃতায় এ বিশাল বাজেট কিভাবে বাস্তবায়ন করবেন তার কোন সুস্পষ্ট ঘোষণা পাওয়া যায়নি। এই কথামালার বাজেটে সাধারণ মানুষ কি পাবে সেটার বহিঃপ্রকাশ খুবই কমই ঘটেছে। তিনি বলেন, সামাজিক সুরক্ষা-দারিদ্র্য বিমোচনসহ যেসকল কল্যাণমূলক প্রকল্প নেয়া হয় এই খাতে বরাদ্দকৃত টাকা প্রকৃত সুবিধাভোগীদের কাছে খুব কমই পৌঁছে। তা মধ্যস্বত্বভোগীদের কাছে চলে যায়। এ বছরও এসব খাতে যে বড় অঙ্ক বরাদ্দ করা হয়েছে। বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা রাখার কোন কৌশল সরকার প্রণয়ন না করায় এর সিংহভাগ শাসকদলীয় সুবিধাভোগীদের পকেটে চলে যাবে।  রিপন বলেন, ঘোষিত বাজেটে সাধারণ মানুষের জন্য কোন সুখবর নেই। বাজেটে ৭ ভাগ প্রবৃদ্ধি অর্জনে সরকারের সক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন সকলের। কৃষিতে ভর্ত্তুকির পরিমাণ বাড়ানো হয়নি। তাই বাজেটকে কোনমতেই কৃষিবান্ধব বলা যাবে না। এটিকে কথামালার বাজেট ছাড়া আর কিছুই বলা যায় না। খালেদা জিয়া রাজনীতি থেকে ফিনিশ হয়ে  গেছেন বলে অর্থমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে  রিপন বলেন, জেনারেল এরশাদের সামরিক শাসন জারির পরপরই মুহিত সাহেব দু’বছর তার অর্থমন্ত্রিত্ব ভোগের সময় ভেবেছিলেন-রাজনীতিকরা শেষ। ৮৮-৯০ সালে এরশাদ যখন প্রধান দলগুলোর বয়কটে পাতানো ইলেকশন করেন, হয়তো তখনও ভেবেছিলেন খালেদা জিয়া-শেখ হাসিনার রাজনীতিও শেষ। বাস্তবিকই কি তা হয়েছিল? তিনি বলেন,  একজন রাবিশ ও অর্বাচীন বালকের মুখেই এ ধরনের কথা মানায়। আর রাবিশ শব্দটি তিনি নিজেই প্রচলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Site Develop by : Shekh Mostafizur Rahman Faysal